মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪ । ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শেখ হাসিনা যুব মহাসমাবেশে বক্তব্য রাখবেন : পরশ

অনলাইন ডেস্ক »

যুব মহাসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এ তথ্য জানিয়ে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ বলেছেন, নেত্রী কেন এই যুব সমাবেশ করতে বলেছেন, সেটি সময় হলে বুঝতে পারবেন। আমাদের রাজপথে শক্তি প্রদর্শন করতে হবে। ঐক্যবদ্ধভাবে সমাবেশে অংশ নিতে হবে।

সোমবার (৩১ অক্টোবর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত যুব মহাসমাবেশের প্রস্তুতি সভায় এ সব কথা বলেন তিনি। আগামী ১১ নভেম্বর যুবলীগ প্রতিষ্ঠার ৫০ বছরপূর্তি এবং সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যুব মহাসমাবেশ সফল করতে এ সভার আয়োজন করা হয়।

বিএনপির উদ্দেশে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, জামায়াত-শিবির ছাড়া বিএনপি আন্দোলন করতে পারে না। এখন তাদের নিয়ে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করছে তারা। তারা নখদন্তহীন বাঘে পরিণত হয়েছে। এবার সরকারের বিরুদ্ধে মাঠে নামলে গণধোলাই খাবে। আমাদের ভয় দেখানোর চেষ্টা করবেন না, আমরা ভেসে আসিনি।

তিনি বলেন, স্বাধীনতাবিরোধীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। তাদের মোকাবিলা করতে যুবলীগ একাই যথেষ্ট। অতীতের প্রতিটি আন্দোলনে শেখ হাসিনার পক্ষে মুখ্য ভূমিকা রেখেছে যুবলীগ। বিএনপির মোকাবিলায় এবার প্রয়োজন হলে যুদ্ধে অবতীর্ণ হব আমরা। যেখানে তাদের দেখবে, সেখানে মোকাবিলা করবে যুবলীগ।

যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, অগ্নিসন্ত্রাস করলে গণধোলাই দিয়ে ঘরে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। হুমকি দিয়ে লাভ হবে না। বিএনপিকে মোকাবিলা করার জন্য যুবলীগ প্রস্তুত আছে। বিএনপির অপেক্ষায় আগামী ১০ ডিসেম্বর রাজপথে থাকবে যুবলীগ।

যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, বিএনপি-জামায়াতের মোকাবিলায় ১১ নভেম্বরের সমাবেশ। এটি জনসমুদ্রে পরিণত হবে, সেখানে খোলা ময়দানে বক্তব্য রাখবেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। তার নির্দেশনা শুনতে সেদিন ঘর থেকে বেরিয়ে আসবে ঢাকাবাসী। এটি হবে শান্তির সমাবেশ, উন্নয়নের সমাবেশ। এ সমাবেশ জঙ্গিবাদবিরোধী সমাবেশ, পেট্রোল বোমার বিরুদ্ধে সমাবেশ, বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে সমাবেশ।
তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ওয়ার্ড পর্যন্ত সতর্ক থাকতে হবে যুবলীগকে। সেইসঙ্গে সমাবেশের প্রস্তুতি নিতে হবে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইন উদ্দিন রানার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজার সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাবু শুভ্রত পাল ও দক্ষিণ যুবলীগের সিনিয়র নেতা ও ওয়ার্ড যুবলীগের নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্যটি লিখুন
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »